About author

Shah Siddiknogori (R.K.): The Preacher of Wisdom

There are only a few people in this world in comparison to the vast population of the earth who sleep, eat and drink in remembrance to the almighty one. Those who do this are known as the ascetics to the people but to the owner of the worlds (Malik Al Alameen), they are even closer to him. They are the true friends (Awlia Allah) of Allah Tobarok wa ta’la. They are known as merely humans with blood and flesh to the people of the outside world but to the wise ones they are indeed, the true knowers of the world that is surreptitious into the ocean of knowledge and wisdom and thus they discover the creator. Ascetics believe and they sacrifice; and they sacrifice and they know; they know and they get lost in the love of the almighty one who created the vast ocean of knowledge and wisdom which lies inside every human regardless of their casts, creeds and believes, and yet they (the mass) remain unknown to their very own. Shah Sufi Abdul Khaleq Chishti Rahimahullahil Kareem (Shah Siddikinogori) is certainly one of them as he has exactly done that. He has chosen the life of Wisdom in place of Ignorance; he has selected the life that is immortal through its perfection and excellence. Khaza Shah Siddiknogori is the founder of Siddiknogori Dorbar Shorif and is the 41 th Janisheen (vicegerent) of the Chishtiya-Sabriya filial tree (Shazaratul Mashaikh or the descending order of the true Spiritual Guides) of the India-Bangladesh Wilayah (spiritual states). He was conferred with the ultimate representative authority by his Murshid-e-Kamil Khaza Shah Soiyod Fariduddin Saki (Mast-e-Saki) RH. on the basis of his spiritual and ascetic excellence that he had achieved while he served his Guru as a devotee and as a servant.

Shah Siddiknogori
প্রথম প্রকাশ
মাসের নাম ০০০০ ঈসায়ী
মুদ্রণ : প্রিন্টার্স-এর নাম লিখতে হবে
গ্রাফিক ডিজাইন, লেখা বিন্যাস এবং প্রকাশনা
মো. এমদাদুল কবির তুহিন
স্বত্বাধিকারী: লেখক

মুদ্রণ, প্রস্তুত ও বন্টন খরচ: প্রায় 300 টাকা.

তরিকতের স্বরূপ

ছিল্ছিলায়ে তরিকতে চিশ্তিয়া সাব্রিয়া- এমদাদিয়া বারিয়া বাংলা-আসাম
বেলায়েতের মহান পথ প্রদর্শক আমার প্রাণপ্রিয় মুর্শীদ কেবলা এবং আমার
খেলাফতের কান্ডারী আল্লামা শাহ্ সৈয়দ খাজা ফরিদ উদ্দিন সাকী ওরফে খাজা
মাস্ত-ই-সাকী (রহ.)-এর খেতমতে থাকা কালীন তাঁর পবিত্র জবান থেকে
একটি বাক্য আমি একাধিক বার শুনেছি। তিনি বলেছেন“যে মানুষের লক্ষ্য সত্য নয়-তার কোন সাধনাই সফল হয় না। কারণ সত্য
বর্জিত জীবন অন্ধকারাচ্ছন্ন জীবন, যা আনুমানিকতার উপর নির্ভরশীল।
ইসলামের দৃষ্টিতে অনুমান বিষয়টি মিথ্যায় ঘেরা। যা হতে দুঃখ আর বিরোধ
ছাড়া কিছু সৃষ্টি হতে পারে না। সুতরাং সার্থক মানবজীবন লাভ করতে চাইলে
সর্বক্ষেত্রে সত্যের উপস্থিতি আবশ্যক।”
আল্লাহর রাসুলের আদর্শিক তরিকায় বিশ্বাসীগণকে অবশ্যই স্মরণ রাখতে হবে
যে, সত্য বর্জন করে কোন কাজ করতে যাওয়া মানে প্রতারণার প্রশ্রয় গ্রহণ
করা। আরও একটি স্মরণীয় বিষয় হলো- মিথ্যা দ্বারা পরিচালিত ব্যক্তিগণের
কেউ যদি বড় কোন কাজ করতে অগ্রসর হয় অথবা নেতৃত্ব দেয়ার প্রয়াস
চালায়, তবে বুঝতে হবে ঐ কাজের যোগ্য সে নয়। মহানগুরু সাকীবাবার
কাছে শুনেছি- “নিজেকে সার্থক করে তুলবার বাসনা থাকলে সত্যকে শ্রদ্ধা
করতে হবে এবং বিনীত জীবন যাপনের মাধ্যমে সঠিক পথের সন্ধানী হতে
হবে।” যারা ঈমানে অনুশীলনরত অর্থাৎ আল্লাহ্-রাসুলের নির্দেশিত পথে
সাধনায় লিপ্ত রয়েছেন, তাদেরকে ভুলে গেলে চলবে না যে, সত্যের মাঝেই
শান্তির নিবাস। আর সেই শান্তি বা তৃপ্তিই মনে আশার সঞ্চার করে লক্ষ্যে
পৌঁছার বিষয়ে সু-সহায়তা দিয়ে থাকে। সত্যানুসন্ধানী ব্যক্তিগণ সরলতায়
বিশ্বাসী, কাজেই তাদের অন্তরে আত্মবিরোধের ঠাঁই থাকে না। সর্বদাই তারা
শান্তিময় জীবনের গন্ডিতে অবস্থান করতে ভালোবাসেন। তাইতো তাদের দ্বারা কখনো কারও অন্যায়-অশান্তিজনিত কিছু ঘটে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।

তারা মানুষের পরম বন্ধু, আল্লাহর অলি। আল্লাহ্ রাব্বুল আলামিনের এক নাম ‘আল্ ওদুদ’ অর্থাৎ প্রেমময়। তাইতো সত্যিকার মানুষ অর্থে মানব জীবন লাভ করার বিষয়ে প্রেমানুভূতি অন্যতম এক সহায়ক শক্তি। এ পথের আকুল দরসে সাকী : ৫

প্রথম প্রকাশ
মাসের নাম ০০০০ ঈসায়ী
মুদ্রণ : প্রিন্টার্স-এর নাম লিখতে হবে
গ্রাফিক ডিজাইন, লেখা বিন্যাস এবং প্রকাশনা
মো. এমদাদুল কবির তুহিন
স্বত্বাধিকারী: লেখক

মুদ্রণ, প্রস্তুত ও বন্টন খরচ: প্রায় 300 টাকা.

শানে আহ্ লে বাইত

তরিকতের স্বরূপ

ছিল্ছিলায়ে তরিকতে চিশ্তিয়া সাব্রিয়া- এমদাদিয়া বারিয়া বাংলা-আসাম
বেলায়েতের মহান পথ প্রদর্শক আমার প্রাণপ্রিয় মুর্শীদ কেবলা এবং আমার
খেলাফতের কান্ডারী আল্লামা শাহ্ সৈয়দ খাজা ফরিদ উদ্দিন সাকী ওরফে খাজা
মাস্ত-ই-সাকী (রহ.)-এর খেতমতে থাকা কালীন তাঁর পবিত্র জবান থেকে
একটি বাক্য আমি একাধিক বার শুনেছি। তিনি বলেছেন“যে মানুষের লক্ষ্য সত্য নয়-তার কোন সাধনাই সফল হয় না। কারণ সত্য
বর্জিত জীবন অন্ধকারাচ্ছন্ন জীবন, যা আনুমানিকতার উপর নির্ভরশীল।
ইসলামের দৃষ্টিতে অনুমান বিষয়টি মিথ্যায় ঘেরা। যা হতে দুঃখ আর বিরোধ
ছাড়া কিছু সৃষ্টি হতে পারে না। সুতরাং সার্থক মানবজীবন লাভ করতে চাইলে
সর্বক্ষেত্রে সত্যের উপস্থিতি আবশ্যক।”
আল্লাহর রাসুলের আদর্শিক তরিকায় বিশ্বাসীগণকে অবশ্যই স্মরণ রাখতে হবে
যে, সত্য বর্জন করে কোন কাজ করতে যাওয়া মানে প্রতারণার প্রশ্রয় গ্রহণ
করা। আরও একটি স্মরণীয় বিষয় হলো- মিথ্যা দ্বারা পরিচালিত ব্যক্তিগণের
কেউ যদি বড় কোন কাজ করতে অগ্রসর হয় অথবা নেতৃত্ব দেয়ার প্রয়াস
চালায়, তবে বুঝতে হবে ঐ কাজের যোগ্য সে নয়। মহানগুরু সাকীবাবার
কাছে শুনেছি- “নিজেকে সার্থক করে তুলবার বাসনা থাকলে সত্যকে শ্রদ্ধা
করতে হবে এবং বিনীত জীবন যাপনের মাধ্যমে সঠিক পথের সন্ধানী হতে
হবে।” যারা ঈমানে অনুশীলনরত অর্থাৎ আল্লাহ্-রাসুলের নির্দেশিত পথে
সাধনায় লিপ্ত রয়েছেন, তাদেরকে ভুলে গেলে চলবে না যে, সত্যের মাঝেই
শান্তির নিবাস। আর সেই শান্তি বা তৃপ্তিই মনে আশার সঞ্চার করে লক্ষ্যে
পৌঁছার বিষয়ে সু-সহায়তা দিয়ে থাকে। সত্যানুসন্ধানী ব্যক্তিগণ সরলতায়
বিশ্বাসী, কাজেই তাদের অন্তরে আত্মবিরোধের ঠাঁই থাকে না। সর্বদাই তারা
শান্তিময় জীবনের গন্ডিতে অবস্থান করতে ভালোবাসেন। তাইতো তাদের দ্বারা কখনো কারও অন্যায়-অশান্তিজনিত কিছু ঘটে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।

তারা মানুষের পরম বন্ধু, আল্লাহর অলি। আল্লাহ্ রাব্বুল আলামিনের এক নাম ‘আল্ ওদুদ’ অর্থাৎ প্রেমময়। তাইতো সত্যিকার মানুষ অর্থে মানব জীবন লাভ করার বিষয়ে প্রেমানুভূতি অন্যতম এক সহায়ক শক্তি। এ পথের আকুল দরসে সাকী : ৫

How to Manage Teams

Upcoming book!

Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit, sed do eiusmod tempor incididunt ut labore et dolore